পেঁয়াজ চুরি ঠেকাতে রাত জেগে পাহারা

প্রতিনিধি, তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ):

বাজারে পেঁয়াজের দাম কোন ভাবেই কমছে না। একটু লাভের আশায় চলনবিলের কৃষকরা এবার বেশি জমিতে আগাম জাতের ডাটি পেঁয়াজ রোপণ করেছে। তবে জমির এই পেঁয়াজ নিয়ে বিপাকে পড়েছে কৃষকরা। প্রতিদিন ক্ষেত থেকে পেঁয়াজ চুরি করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এতে দিশেহারা হয়ে রাত জেগে কুপি বাতি জ্বালিয়ে ক্ষেত পাহারা দিচ্ছে কৃষকরা।

সরেজমিনে চলনবিল অধ্যুষিত সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার নাদোসৈয়দপুর, হেমনগর, চর-হামকুড়িয়া, কাঁটাবাড়ি গ্রাম ঘুরে দেখা যায় অনেক কৃষক ডাটি পেঁয়াজ রোপণ করেছে। দিনভর ক্ষেতের পরিচর্যা করলেও রাতে কুপি বাতিয়ে জ্বালিয়ে ক্ষেত পাহারা দিচ্ছে কৃষকরা।হেমনগর গ্রামের পেঁয়াজ চাষি ফজল আলী, নূরুল ইসলাম ও হামকুড়িয়া গ্রামের মফিজ উদ্দিন জানান, প্রতি কেজি পাতাসহ পেঁয়াজ ১৬০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এতে ভালো লাভবানও হচ্ছেন তারা। কিন্তু সম্প্রতি রাতে পেঁয়াজ চুরির ঘটনা ঘটতে শুরু করেছে। এ নিয়ে তারা দুশ্চিন্তায় রয়েছেন তারা। তাই রাত জেগে ক্ষেত পাহারা দিতে হচ্ছে। নাদোসৈয়দপুর গ্রামের রেহেনা খাতুন বলেন, ক্ষেত থেকে একটু আড়াল হলেই পেঁয়াজ চুরি হয়ে যাচ্ছে। খুব দুশ্চিন্তায় আছি।

ধামাইচ গ্রামের বাসিন্দা প্রভাষক আবু হাশিম খোকন বলেন, আগে কখনো পেঁয়াজ চুরির ঘটনা ঘটেনি। আগে কৃষকরা পেঁয়াজের পাতা ক্ষেতেই ফেলে দিত। কিন্তু বর্তমানে পেঁয়াজের দাম আকাশ চুম্বি হওয়ায় প্রায়ই চুরির ঘটনা ঘটছে। দুর্মূল্যের বাজারে শুধু পেঁয়াজ নয়, পেঁয়াজের পাতা নিয়েও মানুষের মাঝে কাড়াকাড়ি করতে দেখা যাচ্ছে। অথচ অন্যান্য বছরগুলোতে কৃষকরা পেঁয়াজের পাতা জমির পাশে ফেলে দিত।

পাঠকের মন্তব্য
আরো পড়ুন