তাড়াশে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণে ৩ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি:

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ পৌর এলাকায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় তাড়াশ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নং-৬/২০। মামলা সূত্রে জানা যায়, রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) রাতে ধর্ষণের শিকার মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে ধর্ষক তানজীলসহ (২০) তিনজনকে আসামি করে মামলাটি দায়ের করেন। ধর্ষণের শিকার মেয়েটি তাড়াশ জে.আই কারিগরি বালিকা বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। পৌর শহরের পূর্ব ওয়াপদা বাধ এলাকায় বসবাসরত মেয়েটির বাবা ঢাকায় রিক্সা চালান ও মা পার্শ¦বর্তী একটি স্কুলে আয়ার চাকুরি করেন। মেয়েটি তার দাদির সঙ্গে বেশির ভাগ সময় বাসায় থাকতো। একই এলাকার ভাদাস গ্রামের রফিকুল ইসলামে বখাটে ছেলে তানজীল (২০) স্কুলে যাবার পথে প্রায়ই প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। গত বৃহস্পতিবার বিকালে বাড়িতে ডেকে এনে মেয়েটিকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। এ সময় সে তা প্রত্যাখান করলে তালজিল জোর করে তাকে ধর্ষণ করে। রক্তাক্ত অবস্থায় স্কুল ছাত্রী দৌড়ে বাড়িতে চলে এসে ঘটনাটি তার পরিবারকে জানায়।

পরে পরিবারের লোকজন তাকে প্রথমে তাড়াশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুেন্নছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. রঞ্জন কুমার দত্ত বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ১৪ বছর বয়সী ওই কিশোরী ভর্তি হয়। তার নিম্নাঙ্গের ক্ষতে সেলাই দেয়া হয়েছে। এ প্রসঙ্গে তাড়াশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান বলেন, ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। তদন্ত শুরু করেছে।

পাঠকের মন্তব্য
আরো পড়ুন