শাহজাদপুরে পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীর টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ)প্রতিনিধি ঃ

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর থানার এসআই সামিউল ইসলামের বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীর টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার পোরজনা ইউনিয়নের চর পোরজনা গ্রামের মৃত দরদ আলী শেখের পুত্র গরু ব্যবসায়ী মোঃ আজাদ আলী শেখ এসআই সামিউল ইসলামের বিরুদ্ধে লিখিতভাবে এ অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গরু ব্যবসায়ী মোঃ আজাদ আলী শেখ গত ১৪ জানুয়ারি পার্শ্ববর্তী উপজেলা বেড়া চতুর হাটে ৫টি গরু ৩ লক্ষ ৩৮ হাজার টাকা বিক্রি করে বাকী একটি গরু ফেরত নিয়ে  সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরার পথে করতোয়া সেতুর পূর্ব পাশে শাহজাদপুর থানার এসআই সামিউল ইসলাম পথরোধ করে বিভিন্ন রকম উদ্ভট প্রশ্ন করে। সবকিছুর সঠিক জবাব এবং কাগজপত্র  পাওয়ার পরেও জোড়পূর্বক থানায় নিয় এসে বিভিন্ন মামলার ভয়ভীতি দেখিয়ে  কাছে থাকা ৩ লক্ষ ৩৮ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। টাকা নিয়ে নেওয়ার পর ব্যবসায়ী আজাদ, তার সহযোগী এবং গাড়ির ড্রাইভারকে থানার লকআপে ঢুকিয়ে দেয়। তারপর রাত তিনটার সময় লকআপ থেকে বের করে দেয়। তখন আজাদ আলী ছিনিয়ে নেওয়া টাকা ফেরত চাইলে এসআই সামিউল ইসলাম ৯৩ হাজার টাকা রেখে ২ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা ফেরত দেয়। আজাদ আলী বাকী ৯৩ হাজার টাকা চাইলে এসআই সামিউল হোসেন ডাকাতি মামলাসহ বিভিন্ন প্রকার মামলার  ভয়ভীতি প্রদর্শন করে এবং তাদের বানানো কাগজপত্রে টিপসই নেয়। এ অবস্থায় অসহায় গরু ব্যবসায়ী আজাদ আলী বাকী টাকা পাওয়ার জন্য বাদী হয়ে সিরাজগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( শাহজাদপুর সার্কেল)  বরাবর ১৭ জানুয়ারী একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত এসআই সামিউল ইসলাম জানান, আচার আচরণে সন্দেহ হওয়ায় তাকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছিল। পরে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাত্রীতে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।  টাকা নেওয়ার ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান, ‘ তার কাছ থেকে কোন টাকা রাখা হয়নি। সম্পূর্ণ টাকাই তাকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। ‘ এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( শাহজাদপুর সার্কেল )  ফাহমিদা হক শেলী মুঠোফোনে জানান, আমি অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগ পাওয়ার পর তাদের নোটিশ করা হয়েছে । তদন্ত করে দোষী প্রমাণিত হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাঠকের মন্তব্য
আরো পড়ুন