শাহজাদপুরে গৃহবধু রিতা হত্যার আসামীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন ।

শাহজাদপুর(সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ 

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে গৃহবধু রিতা খাতুন হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার  ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী । উক্ত মানববন্ধন ও বিক্ষোভে নারী পুরুষসহ সহস্রাধিক লোক উপস্থিত ছিলেন।   বুধবার  (৩০অক্টোবর)সকাল ১০ টায় শাহজাদপুর উপজেলার গালা ইউনিয়নের কাশিপুর যমুনা রক্ষা বাধে গ্রামবাসীর আয়োজনে উক্ত মানববন্ধন চলাকালীন অংশগ্রহনকারীরা আসামীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন।  মানববন্ধন ও বিক্ষোভ চলাকালীন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল শাহজাদপুর) ফাহমিদা হক শেলী ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক(তদন্ত) শহিদুল ইসলাম বিনোটিয়া ঘটনাস্থলে যাওয়ার  সময় তাদের সামনেই গ্রামবাসী বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এসময় সাংবাদিকরা বিক্ষোভের ভিডিও ধারন করার সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফাহমিদা হক শেলী ভিডিও ধারনে নিষেধ করেন।

এ ব্যাপারে, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি(তদন্ত) শহিদুল ইসলাম বলেন, রিতার বাবা বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। আসামীরা পলাতক রয়েছে তবে তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।  উল্লেখ্য, উপজেলার গালা ইউপির বিনোটিয়া ঘোনাপাড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে সাইদুর রহমানের সাথে এক বছর পুর্বে  পাশ্ববর্তি গ্রামের আবুল কাশেমের কন্যা রিতা খাতুনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দ্বাবিতে সাইদুরের পরিবারের লোকজন  গৃহবধু রিতা খাতুনকে নির্যাতন করে আসছিলো।গত ২২ অক্টোবর রিতার শশুরবাড়ীর লোকজন রিতার বাবার বাড়ীতে খবর দেয় রিতা মারা গেছে। খবর দিয়েই রিতার লাশ ফেলে রেখে শশুর বাড়ীর সবাই পালিয়ে যায় । এসময় রিতার বাবার বাড়ীর লোকজন রিতার শ্বশুর বাড়ীতে গিয়ে লাশ পরে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় ওই দিনই রিতার বাবা বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামী  করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। রিতার বাবা আবুল কাশেম জানান, রিতা ৪ মাসের অন্তঃস্বত্বা ছিলেন।

পাঠকের মন্তব্য
আরো পড়ুন