চৌহালীতে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগ

চৌহালী (সিরাজগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ

সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার রেহাইপুখুরিয়া গ্রামে আর,পি,এন,শহিদ শাহজাহান কবির উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে ধর্ষন করার অভিযোগ উঠেছে। জানা গেছে উপজেলার ৭নং বাঘুটিয়া ইউনিয়নে ১নং ওয়ার্ড রেহাই পুখুরিয়া গ্রামের শামছুল মিয়ার ছেলে মোঃ রাকিবুল ইসলাম(রাকিব)(১৯) একই গ্রামের চেনু উদ্দিনের নাতিন মোঃ মিন্টু মিয়ার মেয়ে মোছাঃ মিম আক্তার(১৪)কে বাড়িতে ডেকে এনে জোরপুর্বক ধর্ষন করে। গত ২৯অক্টবর মঙ্গলবার দুপুরে ধর্ষকের বাড়িতে এঘটনাটি ঘটে।

প্রদক্ষধষী ও মামলা সুত্রে জানা যায় স্থানীয় স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থীকে জোরপুর্বক ধর্ষন কালে ধর্ষিতা মিম চিৎকার দিলে আশ-পাশের লোকজন ঘটনা অবস্থয় ছেলে ও মেয়েকে উদ্ধার করে আলমগীর সরদারের বাড়িতে আটক করে রাখা হয়। ধর্ষনের কোন সুবিচার না দিয়ে ধর্ষকের লোকজন সুকৌশলে ধর্ষককে আটককৃত বাড়ি থেকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। স্কুল পড়ুয়া মেয়ে ও তার পরিবার গ্রামে কোন ন্যায় বিচার না পেয়ে আইনকে শ্রদ্ধা জানিয়ে সিরাজগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১, হাজির হয়ে রেহাই পুখুরিয়া গ্রামের শামছুল হকের ছেলে মোঃ রকিব ইসলাম (রাকিব) কে আসামী করে বাদি মিম মামলা করে। তারিখঃ ০৪/১১/২০১৯ইং মামলা নং- পিং ৭৩২/১৯। ধর্ষিতা মিম বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে আমাকে নানা রকম প্লোবন ও কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল, কোন প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বিয়ে করবে বলে প্রস্তাব দেয় এবং তার মা আমাকে দেখবে বলে তার বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। পরে আমাকে উত্তর দরজা ঘরে নিয়েই আমাকে জোরপুর্বক খাটে ফেলে ধর্ষন করে। আমার বাবা না থাকায় আমি ও মা নানার বাড়ী থেকে পড়ালেখা করছি। গ্রাম্য সালিশের অপেক্ষায় থেকে মামলা করতে বিলম্ব হয়, আমরা গরীব ও অসহায় তাই আইনকে শ্রদ্ধা জানাই এবং ন্যায় বিচার দাবি করছি।

পাঠকের মন্তব্য
আরো পড়ুন