উল্লাপাড়ায় ফসলী জমিতে অবৈধ পুকুর খনন,৭ জনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

উল্লাপাড়া প্রতিনিধিঃ

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ফসলী জমিতে অবৈধভাবে পুকুর খনন করে ট্রাক যোগে মাটি নেওয়া হচ্ছে ইট ভাটায় । সরকারী আদেশ অমান্য করায় ইতিমধ্যেই ৭ জন কৃষকের বিরুদ্ধে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠানো হয়েছে ।

প্রশাসনের অনুমতি না নিয়ে প্রভাবশালী কৃষকগন অধিক লাভের আশায় তিন ফসলি জমিতে পুকুর খনন করে মাছ চাসের উপযোগী করছে । উপজেলার বাঙ্গালা ও পূর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়নে তিন ফসলী মাঠের জমিতে পুকুর খননের ব্যাপকতা সবচেয়ে বেশি। এভাবে পুকুর খনন করায় বিপাকে পরেছে ক্ষদ্র কৃষক । তাদের সল্প পরিসরের জমি ভেঙ্গে যাচ্ছে ওই খননকৃত পুকুরে । ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে ক্ষুদ্র কৃষক । এক পশলা বৃষ্টি হলে সৃষ্টি হচ্ছে জলাবদ্ধতা। ফলে বিপর্যয় ঘটছে পরিবেশের। উপজেলা প্রশাসন থেকে ইতোমধ্যেই অভিযুক্ত পুকুর খনন কারীদের বিরুদ্ধে স্থানীয় ভূমি উন্নয়ন কর্মকর্তাদের মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণ শুরু করেছেন।

উল্লাপাড়া উপজেলার বাঙ্গালা ইউনিয়ন ভূমি অফিসের সহকারী ভূমি উন্নয়ন কর্মকর্তা জাহেদুল আলম জানান, তার ইউনিয়নের অনেক প্রভাশালী জমির মালিক অবৈধভাবে ফসলী জমিতে পুকুর খনন করছেন। তাদেরকে পুকুর খনন কাজ বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হলেও তারা তা মানছেন না। সরকারী আদেশ অমান্য করায় ইতোমধ্যেই ধামাইকান্দি গ্রামের আক্তার হোসেন, পশ্চিম মোহনপুর গ্রামের নুরাল হাজী ও শাহাদ হোসেন, সহ ৫ জনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি এসব পুকুর খননকারীদের বিরুদ্ধে জলমহাল ও মাটি ব্যবস্থা আইনে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে প্রতিবেদন দেওয়া হয়েছে। উপজেলার পুর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়ন ভূমি অফিসের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোঃ জাহাঙ্গীর আলম জানান, বেশ কিছুদিন ধরে তার ইউনিয়নে প্রভাবশালী কৃষকগন প্রশাসনের অনুমতি না নিয়ে অবৈধভাবে তাদের ভূমির শ্রেণি পরিবর্তন করে পুকুর খনন শুরু করেছেন । এতে খননকৃত পুকুরের পাশের ফসলী জমির মালিক ক্ষদ্র কৃষকগণ তাদের জমি নিয়ে বিপাকে পড়েছে। পুকুর খননকারীদেরকে বাঁধা দিলেও তারা তা শুনছেন না। বুধবার পূর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়নের ফলিয়া গ্রামের আব্দুল কাদের ও গোয়ালজানি গ্রামের মানিক হোসেনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। আরো কয়েকজনের নামে নোটিশ প্রস্তুত হয়েছে ।

এ ব্যাপারে উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আরিফুজ্জামানের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, স্থানীয় ভাবে কৃষকদের অভিযোগের ভিত্তিতে ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নগুলোর ভূমি উন্নয়ন সহকারী কর্মকর্তাদেরকে অবৈধভাবে পুকুর খননকারীদের খনন যন্ত্র ও আনুসঙ্গিক সামগ্রী জব্দ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মোঃ আব্দুস ছাত্তার উল্লাপাড়া, সিরাজগঞ্জ তাং ০৬/১২/১৯ ইং ।

পাঠকের মন্তব্য
আরো পড়ুন